কক্সবাজার যাবেন? কোথায় রাত্রি যাপন, খাবার ব্যবস্থা, কি কি দেখবেন সহ ইত্যাদি তথ্য

পাহাড় ঘেরা জলরাশির কলতান শহরে আপনাকে আমন্ত্রিত

পরিচিতিঃ

প্রাচীন পালঙ্কি/পানোয়া (হলুদ ফুল) নামের বর্তমান নাম কক্সবাজার। ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির অফিসার হিরাম কক্স থেকে এই কক্সবাজার। কক্সবাজার! পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের জন্য বিখ্যাত নাম। তার নৈসর্গিক সৌন্দর্য্য প্রতিটি পর্যটককে হৃদয়স্পর্শ করে। সিরাজগঞ্জ জেলা থেকে ৫২১ কি.মি কিলোমিটার দূরত্ব। বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটন অঞ্চল হল এই কক্সবাজার।



বীচে নামার আগে যে বিষয়টা মনে রাখবেন?

জোয়ার এর সময় বীচে গোসল করতে পারবেন। কিন্তু ভাটার সময় বীচে নামা বিপদজ্জনক। জোয়ার-ভাটা সম্পর্কিত তথ্যের জন্য লাইফ গার্ডের সাইন বোর্ড এবং পতাকা উড়ানো হয়। জোয়ার এর সময় সবুজ পতাকা এবং ভাটার সময় লাল পতাকা। এই বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে বীচে নামবেন।

ভুলেও যে দর্শনীয় স্থানগুলো মিস করবেন না!

লাবনী বীচ, সুগন্ধা বীচ, কলাতলী বীচ, হিমছড়ি, ইনানী বীচ, মেরিন রোড, সেন্টমার্টিন, রেডিয়েন্ট ফিস ওয়ার্ল্ড, রামু বৌদ্ধ বিহার, মহেশখালি, সোনাদিয়া দ্বীপ , আদিনাথ মন্দির, ডুলাহাজারা সাফারি পার্কসহ আরো অসংখ্য দর্শণীয় স্থান যা আপনার মনে নতুন প্রাণের সঞ্চার করবে।



যেখানে রাত্রিযাপনঃ ( কক্সবাজার যাবো কোথায় থাকবো )

  • ৫০০ টাকার রুম থেকে বিলাসবহুল বাড়ি অবধি ভাড়া পাবেন। তন্মধ্যে রয়েল টুলিপ সী পার্ল বীচ রিসোর্ট এন্ড ‍স্পা, হোটেল সী ক্রাউন, লং বীচ হোটেল, হোটেল দি কক্স টুডে, ওসান প্যারাডাইজ হোটেল এন্ড রিসোর্ট, কক্স ইন ইত্যাদি অসংখ্য হোটেল ও রিসোর্ট রয়েছে।
  • রুম বুকিং করতে পারেন – বুকিং রুম

যেখানে খাবেনঃ ( কক্সবাজার যাবো কি কি খাবো )

  • কক্সবাজার আসলে যে খাবারটা কখনোই মিস করবেন না সেটা হল সামুদ্রিক মাছ। খাবারের মেন্যুতে অবশ্যেই যে মাছগুলো আপনাকে আকর্ষণ করে তুলবে চিংড়ি, লইট্যা, রূপচাঁদা, ছুরি, মাছসহ অনন্য স্বাদের শুটকি মাছের ভর্তা। প্রতিটি হোটেল ও রিসোর্ট এর পাশে খাবার হোটেল/রেস্টুরেন্ট আছে। ১০ থেকে হাজার টাকার মেন্যু গ্রহণ করতে পারবেন।
    বীচের আনন্দঃ
  • জিপিং, ঘোড়ায় চড়া, স্পিডবোট, বাইকিং, সাঁতার, সুইমিংপুল, রাইডিং, স্পা, জিম, ফুলমুন টেরেস, ওয়েলনেস সেন্টার, নান্দনিক গ্রান্ড লবি, প্লায়িং ইত্যাদি ইত্যাদি অনায়াসে উপভোগ করতে পারবেন ।
  • কক্সবাজার শুধুমাত্র সমুদ্র সৈকত নয়, কক্সবাজার আরো দর্শণীয় স্থান ও স্থাপনার জন্য বিখ্যাত। বিভিন্ন উপজাতি গোষ্ঠীর বসবাসে বৈচিত্রময়। মন জুড়ানো কক্সবাজারে আপনাকে আবারও আমন্ত্রণ।

বাংলাদেশের অনান্য দর্শনীয় স্থানের সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন