ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জ বাস ভাড়া, কাউন্টার নাম্বার, লোকেশন ও ভ্রমণ গাইড

পরিচিতি-

মধুমতি নদীকে কেন্দ্র করে বর্তমান গোপালগঞ্জ শহরের যাত্রা। তৎকালীন বাকেরগঞ্জ থেকে আলাদা হয়ে  ১৮৫৪ সালে মাদারীপুর মহকুমা  এবং ১৮৭২ সালে মাদারীপুর মহকুমায় গোপালগঞ্জ নামক একটি থানা গঠিত হয়। একবছরপর অর্থাৎ ১৮৭৩ সালে মাদারীপুর মহকুমাকে বাকেরগঞ্জ জেলা থেকে ফরিদপুর জেলার সঙ্গে যুক্ত করা হয়। ১৯০৯ সালে মাদারীপুর মহকুমাকে ভেঙ্গে গোপালগঞ্জ মহকুমা গঠন করা হয়। ১৯৮৪ সালের ১ ফেব্রুয়ারি গোপালগঞ্জ মহকুমাকে জেলায় উন্নীত করা হয়।  এটি পূর্বে ফরিদপুর জেলার অন্তর্গত একটি মহকুমা ছিল। ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জ বাস ভাড়া, কাউন্টার নাম্বার, লোকেশন ও ভ্রমণ গাইড।



যেভাবে যাবেন-

এই পেইজের নিচের দিকে স্ক্রল করতে থাকলে এসি/নন এসি বাসের ধরন, ভাড়া, কাউন্টার নাম্বার সহ ইত্যাদি তথ্য পাবেন।
আকর্ষনীয় দর্শনীয় স্থান সমূহের মধ্যে রয়েছে-

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সঃ

জাতির পিতা ,স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি ও সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধটি  অবস্থিত গোপালগঞ্জ জেলা সদরের টুঙ্গীপাড়া গ্রামে। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০১ সালের ১০ জানুয়ারি  এ সমাধিসৌধের উদ্বোধন করেন। বাইগার নদীর পাড়ে  প্রায় ৩৯ একর জমির উপর সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এই সমাধি সৌধটি    নির্মাণ করে। কমপ্লেক্সের সামনের উদ্যান পেরিয়ে গেলেই বঙ্গবন্ধুর কবর চোখে পড়ে। বঙ্গবন্ধুর কবরের পাশেই তাঁর বাবা শেখ লুৎফর রহমান এবং মা সায়েরা খাতুনের কবর। এই তিন কবরকে ঘিরেই মূল সৌধ নির্মাণ করা হয়েছে। সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সের মধ্যে রয়েছে প্রশাসনিক ভবন, পাবলিক প্লাজা,গবেষণাকেন্দ্র, প্রদর্শনী কেন্দ্র,  মসজিদ, পাঠাগার, ক্যাফেটেরিয়া, উন্মুক্ত মঞ্চ, বকুলতলা চত্বর,স্যুভেনির কর্নার, ফুলের বাগান এবং কৃত্রিম পাহাড়। গোপালগঞ্জের সকল দর্শনীয় স্থানের তথ্য এবং কিভাবে তা ভিজিট করবেন জানতে এখানে ক্লিক করুন।

ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জ গিয়ে কোথায় গাড়ি পাব? কাউন্টার কোথায়? গাড়ি না পেলে কী করবো?  রাতে কী গাড়ি পাব? থাকার জায়গা পাব? রেস্টুরেন্ট খোলা থাকবে? শপিং কিভাবে করবো সহ ইত্যাদি তথ্য পেতে এখানে ক্লিক করুন

ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জ বাস সরাসরি স্থল পথে যাওয়া যায়। এসি / নন এসি উভয় ধরনের বাসের ব্যবস্থা রয়েছে।

লক্ষ্য করুন, নিম্নে আপনি সকল বাস এবং বাস সংশ্লিষ্ট সকল তথ্য যেমন ভাড়া, বাস কাউন্টার, কাউন্টারের নাম্বার ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন এবং তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জ বাস ভাড়া, কাউন্টার নাম্বার, লোকেশন ও ভ্রমণ গাইড।

নন এসি বাস সমূহ

বাসের নাম

ভাড়া 

বিস্তারিত 

টুঙ্গি পাড়া এক্সপ্রেস

৪০০ টাকা

সাকুরা পরিবহন

৬৫০ টাকা

সেবা গ্রীন লাইন

আব্দুল্লাহপুর – ৫৮০ টাকা
গাবতলী – ৫৩০ টাকা

গোল্ডেন লাইন

৫০০ টাকা

দোলা পরিবহন

৮৭০ টাকা

ইমাদ এন্টারপ্রাইজ

৪৭০ টাকা




এসি বাস সমূহ

বাসের নাম

ভাড়া 

বিস্তারিত 

সেইন্টমার্টিন হুন্দায়

১৪০০ টাকা

টুঙ্গি পাড়া এক্সপ্রেস

৫০০ টাকা

ইমাদ এন্টারপ্রাইজ

৬০০ টাকা

পরার্মশঃ আপনি যে বাসে করে যাওয়ার সিদ্বান্ত নিয়েছেন ঐ বাস সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন। হয়রানির সম্মূখিন হলে বা কোন অভিযোগ থাকলে তাদের জরুরী মোবাইল নাম্বারে জানান। অথবা আমাদের নিজস্ব ফেইসবুক গ্রুপপেইজ রয়েছে, যেখানে আপনারা আপনাদের মতামত জানাতে পারেন। যে বাসে করে আপনি ভ্রমণে যাচ্ছেন, সে বাস সম্পর্কে লিখুন আমাদের ফেইসবুক গ্রুপে, আপনার একটি লিখা ঐই বাস কে যাত্রী সেবার মান বাড়াতে সাহায্য করবে। এবং আমাদের ওয়েব সাইটের নিয়মিত আপডেট পেতে ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন। এছাড়াও আমাদের ওয়েব সাইট নিয়ে কোন অভিযোগ বা পরামর্শ বা কোন তথ্য আমাদের কাছে পাঠাতে চায়লে মেইল করুন- [email protected] । ধন্যবাদ ।

x